Bangladesherpatro.com

কবিতা: ছুটে এসে মিশে যাও

ছুটে এসে মিশে যাও
প্রকাশ চন্দ্র রায়

ক্যামন করে তোমার হস্তগত হলাম,
ক্যামন করে পৌঁছলাম এসে যৌবনের ঘাটে,
কোনদিকে পালালো বাল্য-কৈশোর আমার
জানি না তা! জানি না সঠিকভাবে!
যৌবনের ডালে ফুল ফুটেছে,
বসন্ত এসে ভর করেছে দেহ-মনে;
ক্ষণে ক্ষণে এখন মনে জাগে কেবল
তোমাকে কাছে পাওয়ার অতল আকুলতা।
সুস্মিতা! সামান্য ক্ষণের ছোঁয়া-ছুঁয়িতে
আর অনধিক কালের আলিঙ্গনে,
তুমি আমাকে উন্মাদিত এক প্রেমিক বানালে।
প্রাসঙ্গিক ভাবনার ব্যূহ ভেদ করে
তোমার ভাবনারা’ই এখন উঁকিঝুঁকি মারে
অপ্রাসঙ্গিকভাবে মস্তিস্কের মণিকোটরে।
এভাবে কতদিন!কতক্ষণ আর সহ্যের সীমানায়
পুষে রাখা যায় অম্লমধুর স্বাদের অমলিন যাতনাকে।
যমযাতনা’র অবসান কল্পে তুমি আসছ না কেন ছুটে?
আমি তো বুক পেতে রেখেছিই অহর্নিশি
তোমাকে আপনার করে রেখে দেবার ছলে।
কেন যে হারালো বাল্য-কৈশোর!
কেন যে আসলো উন্মত্ত যৌবন!
কেন যে তোমার সান্নিধ্য-সুখ পেলাম যৌবনের ঘাটে!
এখন আর দিন কাটে না-রাত কাটে না!
অচেনা আতঙ্কে বয়ে চলছে অস্থির সময়।
সুস্মিতা!তুমি ছুটে এসে মিশে যাও আমার আত্মায়-সত্ত্বায়;
নইলে আমার প্রাণ যায় প্রাণ যায়।

রচনাকাল- ৭ আগস্ট ২০২১, শনিবার।

Leave A Reply

Your email address will not be published.