আমাদের যত ভুল ধারণা যোগব্যায়ামের ব্যাপারে

0

it-5
অন্যান্য ডেস্ক:
যোগব্যায়াম বর্তমানে খুব জনপ্রিয় হয়ে পড়েছে সব বয়সের মানুষের মাঝেই। সুস্বাস্থ্যের লক্ষ্যে অনেকেই অন্যান্য কর্মকাণ্ডের চাইতে যোগব্যায়ামকে প্রাধান্য দিচ্ছেন। কিন্তু এই যোগব্যায়ামকে ঘিরে আমাদের রয়েছে বেশ কিছু ভুল ধারণা। আপনি নিয়মিত যোগব্যায়ামের ক্লাস করে থাকুন বা মাঝে মাঝে, এমন কিছু ভুল ধারণা আপনার মাঝেও থাকতে পারে।

ভুল ধারণা ১- যোগব্যায়ামের ফলে ঘামের সাথে বের হয়ে যায় টক্সিন
যোগব্যায়ামের সময়ে আমরা ঘেমে যাই কিন্তু তা হয় আমাদের শরীর ঠাণ্ডা রাখার উদ্দেশ্যে। এর সাথে শরীর থেকে টক্সিন বের হয় যায় না, বের হয় শুধু পানি, লবন এবং ইলেক্ট্রোলাইট। শরীরকে টক্সিন থেকে মুক্ত রাখতে চাইলে যোগব্যায়াম নয় বরং টক্সিনযুক্ত উপাদান শরীর থেকে দূরে রাখতে হবে। তবে তারমানে এই নয় যে যোগব্যায়ামের উপকারিতা নেই। অনেকগুলো উপকারিতা আছে যোগব্যায়ামের, যার মাঝে আছে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা, ফুসফুসের স্বাস্থ্য ভালো রাখা, হৃদরোগের ঝুঁকি কমানো এবং দুশ্চিন্তামুক্তি ইত্যাদি।

ভুল ধারণা ২- ৬০ মিনিট থেকে ৯০ মিনিট ধরে ব্যায়াম করতে হবে
এটা ঠিক যে অনেক লম্বা সময় ধরে যোগব্যায়াম করার পর শরীর যেমন ঝরঝরে লাগে তার সাথে কোন কিছুরই তুলনা হয় না। কিন্তু আপনার হাতে এতটা সময় নেই বলে আপনি যোগব্যায়াম করবে না তা কিন্তু অনেক বড় ভুল। এমনকি ২০ মিনিট সময় থাকলেও তা ব্যায়ামে ব্যয় করলে সুফল পেতে পারেন।

ভুল ধারণা ৩- যোগব্যায়াম একটি ধর্ম
যদিও অনেকে ধর্মবিশ্বাসের আনুষঙ্গিক হিসেবে যোগব্যায়াম করে থাকেন, কিন্তু একে শুধুমাত্র উপকারী একটি ব্যায়াম হিসেবেই ধরে নিয়ে থাকেন বেশিরভাগ মানুষ। যোগব্যায়াম কমায় স্ট্রেস আর শরীরের সার্বিক সুস্থতা বাড়ায়।

ভুল ধারণা ৪- যোগব্যায়ামের কোনো ঝুঁকি নেই
সময় নিয়ে, ধীরে ধীরে করতে হয় বলে অনেকেই মনে করেন অন্যান্য ব্যায়ামে যেমন আহত হবার ঝুঁকি আছে এতে তেমন নেই। কিন্তু আসলেই কি তাই? সঠিক নিয়ম মেনে চললে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই যোগব্যায়াম ঝুঁকিমুক্ত। কিন্তু এতে আহত হবার সম্ভাবনা এর পরেও থেকে যায়। যোগব্যায়াম করতে গেলে অনেক সময়ে স্ট্রোক বা নার্ভ ড্যামেজ থেকে ব্যাথা হতে পারে। এ থেকে নিরাপদ থাকার উপায় হলো নিজের শরীরের প্রতি মনযোগী হওয়া, ঠিকভাবে ব্যায়াম করা, শরীর যাতে পানিশূন্য না হয় তার প্রতি লক্ষ্য রাখা এবং যা করার ক্ষমতা আপনার নেই তা চেষ্টা না করা। অন্তসত্বা নারী, গ্ল“কোমা এবং সায়াটিকার রোগীদের উচিৎ দেহভঙ্গিমায় কিছু পরিবর্তন এনে তারপর যোগব্যায়াম করা।

ভুল ধারণা ৫- গরম পরিবেশে যোগব্যায়াম করার উপকারিতা বেশি
অনেকে মনে করেন উঁচু তাপমাত্রায় ব্যায়াম করলে ক্যালোরি বেশি ক্ষয় হবে। কিন্তু আসলে এতে খুব একটা উপকার হয় না। তার ওপর অতিরিক্ত গরমের মাঝে ব্যায়াম করতে গেলে অনেকেরই শরীর পানিশূন্য হয়ে পড়ে, মাথা ঘুরতে থাকে, দুর্বলতা দেখা দেয়। শেষ পর্যন্ত উপকারের চাইতে ক্ষতিটাই বেশি হয়।

Leave A Reply

Pinterest
Print