কালীগঞ্জে দুই সহযোগীসহ এক ভূয়া ডাক্তার আটক

0

Fack doctor ভূয়া ডাক্তারমনিরুল আলম, কালীগঞ্জ (গাজীপুর)প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের মৈশার বাজার থেকে সোমবার বিকালে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ে দুই সহযোগীসহ এক ভূয়া ডাক্তারকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত ওই তিনজনের নামে থানায় একটি প্রতারণা মামলা দায়ের হয় এবং তাদের বিকালেই আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নাজমুল হক জানান, রোববার সন্ধ্যায় ইসমাইল নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ে দুই সহযোগীসহ মৈশার বাজর কমিটির সভাপতি লোকমান হোসেনের মার্কেটে বসে, এলাকায় সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা দিতে শুরু করে। বিষয়টি স্থানীয়দের সন্দেহ হলে তাদের তিনজনকে আটক করে। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিয়ে তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। আটককৃত ডাক্তার হলেন-নোয়াখালী বেগমগঞ্জ থানার নাজিরপুর গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন (৪৫), সহযোগী রাজশাহীর চারঘাটের হানাপাড়া গ্রামের মৃত আশরাফ আলীর ছেলে তবারক হোসেন (৫৪), ও বরিশাল মুল­দী এলাকার মধ্যগাচুরী গ্রামের মৃত খন্দকার আব্দুল লতিফের ছেলে শাহরিয়ার আলম (৪৫)।
এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার চৌড়া গ্রামের মৃত কসুম উদ্দিনের ছেলে জাকির হোসেন বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি প্রতারণা মামলা (নং ১৯) দায়ের করেছেন। ওই মামলায় সোমবার বিকালে তাদের গাজীপুর আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।
কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদেকুর রহমান আখন্দ জানান, নিয়মানুয়ায়ী দেশের কোন চিকিৎসক এমবিএস হলে বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের (বিএমডিসি) রেজিষ্টেশন লাগে কিন্তু প্রাথমিকভাবে সেটা তারা দেখাতে পারেনি। তাই সে ভুয়া ডাক্তার হতে পারে।
কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলম চাঁদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মামলার বাদীর ব্যাপারে বলেন, মামলার বাদী যে কেউ হতে পারে।

Leave A Reply

Pinterest
Print