নওগাঁয় বিভিন্ন উপজেলাতে বন্যায় দুর্ভোগে এলাকাবাসী

0

এসএম রাসেল, নওগাঁঃ নদীর পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে বাঁধের অবস্থা ভয়ঙ্কর থেকে ভয়াবহ আকার ধারন করায় বন্যা আতঙ্কে আতঙ্কিত নওগাঁর বিভিন্ন উপজেলার এলাকাবাসী। গত কয়েক দিনের চেয়ে নদীর পানি আরও বৃদ্ধির দিকে রয়েছে। নদীর পানি বিপদসীমার অনেক বেশি উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় বাঁধগুলোতে দেখা দিয়েছে গর্ত ও ফাটল। নদীর বাঁধগুলোর গর্ত ও ফাটল দিয়ে পানি বাহির হচ্ছে। এসব গর্ত ও ফাটল দিয়ে পানি বাহির হওয়ার স্থানকে চিহ্নিত করা বেশ কষ্টকর হয়ে পড়ছে। নওগাঁর ১১টি উপজেলার মধ্যে ৯ টি উপজেলাতে বন্যা হয়েছে।
সরেনজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নওগাঁ সদর উপজেলার ইকরতারা এলাকায় গত বৃহস্পতিবার রাত্রি ৩ টায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধ ভেঙ্গে গেছে। এতে আশেপাশের এলাকাসহ অন্যান্য এলাকা পানির নিচে তলিয়ে গেছে এবং বগুড়া থেকে নওগাঁ বাইপাস মহাসড়ক উপচে ও রাস্তার বিভিন্ন পুল-ব্রিজ দিয়ে প্রবাহিত পানিতে খলিসাকুড়ি ও পার-নওগাঁ ডুবে গেছে।
তাছাড়াও গত বৃহস্পতিবার রাত্রি ৪ টায় ডিগ্রি মোড় সংলগ্ন বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধে ফাটল দিয়ে দ্রুত পানি বের হতে লাগলে, এলাকাবাসী যথাসময়ে উপস্থিত হয়ে বালির বস্তাসহ অন্যান্য সরঞ্জাম দিয়ে তা বন্ধ করে দেয়।
এছাড়াও শনিবার রাত্রি সাড়ে ৪ টায় উকিল পাড়া সুইচ গেট এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধে গর্ত থেকে খুব দ্রুত পানি বের হতে লাগলে এলাকাবাসী সময়মত তা বন্ধ করে দেয়। বিজিবি ক্যাম্প (নওগাঁ সদর) এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধে ফাটল দেখা দিয়েছে এবং তা বন্ধ করা হয়েছে। নওগাঁয় আমতলি মোড়ে নতুন করে ফাটল দেখা গেছে, এতে রাস্তার সকল যানবাহন চলাচল বন্ধসহ বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধের ফাটল বন্ধ করা হয়েছে।
নওগাঁ সদরের শহর রক্ষা বাঁধ উপচে নদীর পানিতে প্লাবিত হয়েছে মুক্তির মোড়, কেডির মোড়,সরিষাহাটির মোড়,কাজির মোড়,নওগাঁ জেলা প্রশাসকের বাসভবন, পুলিশ সুপারের বাসভবন, নওগাঁ সরকারি কলেজ, সরকারি বিএমসি মহিলা কলেজ, বিভিন্ন সরকারি, বে-সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অফিসসমূহ।

Leave A Reply

Pinterest
Print