ভূঁয়া কাজীকে আটকের পর ছেড়ে দিল কালিগঞ্জ থানা পুলিশ

0

গাজীপুরে পুলিশ ভ্যান-বাস সংঘর্ষ, আহত ৬

কালীগঞ্জ(গাজীপুর)প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালিগঞ্জে নিকাহ রেজিষ্ট্রারের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এক ভূঁয়া কাজীকে আটকের পর থানা পুলিশ ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
পৌরসভার ৪, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিষ্ট্রার মো. মুঞ্জুর হোসেন জানান, কালীগঞ্জ পৌরসভার চৌড়া উত্তরগাঁও গ্রামের মৃত আঙ্গুর কাজীর ছেলে কাজী কামাল হোসেন কমল (৪৬)। দীর্ঘদিন যাবৎ সে পৌর এলাকায় আ. লীগ নেতার মার্কেটের এক জন চায়ের দোকানী হিসাবে পরিচিত। কিন্তুু সে পৌর এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে নিজেকে মুসলিম ম্যারেজ রেজিষ্ট্রার পরিচয় দিয়ে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বাল্য বিবাহ, নিকাহ ও তালাক রেজিষ্ট্রেশনসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ড করে আসছিল। সে গত ১৪ আগষ্ট ২০১৬ইং তারিখে পৌরসভার মূলগাঁও এলাকায় শিমুল ও অপ্রাপ্তবয়স্ক ফাতেমার বিয়ে পড়িয়ে ভূয়া রেজিষ্ট্রি সম্পন্ন করে।
তিনি আরো জানান, এ বিষয়ে গত রবিবার আমি বাদী হয়ে কালিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে এস.আই মো. গোলাম মাওলা দুপুরে ঐ ভূয়া কাজী কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসলে তিনি তার অপরাধ স্বীকার করেন। কিন্তু গভীর রাতে ভূয়া কাজী কামাল হোসেনকে পুলিশ ছেড়ে দিয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।
এ বিষয়ে কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলম চাঁদের সাথে মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
তবে আটককারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই গোলাম মাওলা জানান, অভিযোগ ভিত্তিহীন হওয়ায় তাকে এক আ. লীগ নেতার জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয় । এবিষয়ে বাদী মনজুর হোসাইন জানান আমার কাছে সকল প্রমাণ আছে।

Leave A Reply

Pinterest
Print