সৈয়দপুর পৌরসভার ১৩৫ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

0

শাহজাহান আলী মনন, নীলফামারী: নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের জন্য ১৩৫ কোটি ৩৩ লাখ ৩৮ হাজার ৬৮৭ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। রবিবার সন্ধায় (২৪ জুন) পৌরসভার চত্বরে পৌরসভাটির মেয়র অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন সরকার ওই বাজেট ঘোষণা করেন। বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানটি সরাসরি স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সম্প্রচার করা হয়।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন নীলফামারী জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মোঃ আবদুল গফুর সরকার, জাতীয় পার্টির আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন, সৈয়দপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি আমিনুল হক, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ জিয়াউল হক, প্যানেল মেয়র-২ শাহীন আকতার, প্যানেল মেয়র-৩ কাজী জাহানারা পারভীন, কাউন্সিলর মোঃ শাহিন হোসেন, মোঃ জোবায়দুল ইসলাম মিন্টু, শেখ মোহন, মোঃ আল মামুন সরকার, মোঃ আজগার আলী, কাজী মনোয়ার হোসেন হায়দার, সৈয়দ মঞ্জুর আলম, মোঃ আবিদ হোসেন, ১০, ১১ ও ১২নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর মিনারা বেগম, ১৩, ১৪ ও ১৫নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর জোসনা বেগম প্রমুখ।
বাজেটে রাজস্ব খাতে সম্ভাব্য আয় ধরা হয়েছে কর বাবদ ৬ কোটি ১৫ লাখ ২৯ হাজার ৯৯১ টাকা, স্থাবর সম্পত্তি হতে আয় ২ কোটি ৫০ লাখ, সরকারি অনুদান বাবদ ১ কোটি ৪৫ লাখ ৬৫ হাজার, পৌর সম্পত্তি হতে ভাড়া বাবদ ৯৭ লাখ টাকা, ব্যাংক লভ্যাংশ ১০ লাখ, পানি শাখার আয় ১ কোটি ৩৯ লাখ ৯ হাজার ১৮৬ টাকা, উন্নয়ন সহায়তা তহবিল ১ কোটি ৫০ লাখ, বিশেষ অনুদান ১ কোটি টাকা, গর্ভারনেস অ্যান্ড সার্ভিসেস প্রজেক্ট (এমজিএসপি) কর্তৃক কাজের উন্নয়ন সহায়তা মজুরী ৮০ কোটি টাকা সহ মোট ১১২ কোটি ৮০ লাখ ৯৬ হাজার ৪৪৭ টাকা।
ব্যয় ধরা হয়েছে সম্মানী ভাতা ও ভ্রমণ ভাতা বাবদ ৪০ লাখ টাকা, অবসর কর্মচারীদের পাওনা ১ কোটি ২০ লাখ, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক ব্যয় ৪৫ লাখ ১০ হাজার, স্বাস্থ্য ও পয়ঃপ্রণালী পরিস্কার ২ কোটি ৫০ লাখ ৫০ হাজার টাকা, বৃক্ষ রোপণ বাবদ ৫ লাখ টাকা, খেলাধুলা ও সংস্কৃতি ব্যয় ১০ লাখ টাকা, পৌরবৃত্তি ও গুণীজন সংবর্ধনা ২০ লাখ টাকা, মেধাবী ও গরীব ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষাখাতে অনুদান ১০ লাখ টাকা, পানি শাখার খরচ ১ কোটি ৩০ লাখ ৮৯ হাজার ৩২৪ টাকা, রাস্তা, ড্রেন, ব্রীজ, কালভার্ট নির্মাণ ও মেরামত বাবদ ২ কোটি ৫০ লাখ টাকা, সৈয়দপুর পৌর কমিউনিটি নির্মাণ বাবদ ৯ কোটি টাকা, সৈয়দপুর পৌর সুপার মার্কেট নির্মাণ বাবদ ১০ কোটি টাকা, আধুনিক কষাইখানা নির্মাণ ২ কোটি, বাস-ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ ৩ কোটি টাকা, অফিস ভবন নির্মাণ ৩ কোটি টাকা, পৌর হাট-বাজার উন্নয়নের জন্য ৩ কোটি সহ ব্যয় ধরা হয়েছে ১১২ কোটি ৮০ লাখ ৯৬ হাজার ৪৪৭ টাকা।
বাজাটে কোন উদ্বৃত্ত দেখানো হয়নি। তবে বাজেটে কোন করারোপ করা হয়নি এবং উন্নয়ন কাজে বেশি বরাদ্দ রাখা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে উপজেলা শিক্ষা অফিসার শাহজাহান মন্ডল, উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার জাকির হোসেন সরকার সহ ব্যবসায়ী, সাংবাদিক ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply